ইন্টিরিয়ার ডিজাইন – কিভাবে সাজাবেন আপনার ড্রেসিং টেবিল ?

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

গোঁফের আমি, গোঁফের তুমি,
গোঁফ দিয়ে যায় চেনা ।

গোঁফ দিয়ে না হোক, রূপ দিয়ে নিজেকে চেনাতে আমাদের প্রচেষ্টার অন্ত নেই । আপনার সেই রূপসজ্জার অভিজ্ঞতাকে একটু সুখকর করে তুলতেই আমাদের আজকের এই প্রয়াস।

অন্তঃসজ্জার বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নিয়ে আজ আর বিশেষ কিছু বলব না – আগের দিন এই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে । তবে কাজের কথায় আসা যাক। বিষয়টা এতক্ষণে ঠাহর করতে পেরেছেন নিশ্চয়ই ? ঠিক ধরেছেন, ড্রেসিং টেবিল ।

Antique-Dressing-Table-With-Mirror-And-Stool-For-Master-Bedroom-Decor-Ideas

 

আপনি ভাবছেন অন্য কথা – একটা আয়না আর কতগুলো ড্রয়ার, এ নিয়ে আবার লেখালেখির কি আছে, সুবিধে মতো এক জায়গায় বসিয়ে দিলেই তো হল! আছে মশাই আছে। আপনি আপাত ভাবে না জানলেও আপনার অবচেতন কিন্তু সব জানে!

তবে তার আগে একটা গল্প বলি। এই ড্রেসিং টেবিলের ধারণা কিন্তু আজকের নয়। সিন্ধু সভ্যতায় তামার আয়না আর হাতির দাঁতের তৈরী বাক্স দিয়ে সাজানো এক ধরনের ‘ড্রেসার সেট’ পাওয়া যেত । এই ড্রেসার সেট -ই নানা বিবর্তনের পরে মোগল আমলে প্রায় ড্রেসিং টেবিলের আকার ধারণ করে – প্রায় , কিন্তু পুরোটা নয়। গোল বা ডিম্বাকৃতি আয়না , দু একটি তাক আর প্রভুত অলঙ্করণ ছিল এই ড্রেসার সেট এর বৈশিষ্ট্য ।

আজকে যাকে আমরা ড্রেসিং টেবিল বলে চিনি, তার জন্ম কিন্তু ইউরোপে । ফ্রান্সে সম্ভ্রান্ত পরিবারের মহিলারা এক ধরনের বাক্স বা ড্রেসিং কেস ব্যবহার করতেন – তাতে একটা ছোট আয়না আর পারফিউম এবং অন্যান্য প্রসাধন সামগ্রী রাখার খোপ থাকত। সপ্তদশ শতকের শেষের দিকে এসে এই বাক্সটি একটা টেবিলের উপর রেখে, চেয়ারে বসে সাজগোজ করা শুরু হয় – ড্রেসিং টেবিলের ভাবনাটা সেখান থেকেই আসে। অষ্টাদশ শতকে এসে এই ড্রেসিং টেবিল ই বংশ মর্যাদা আর শৌখিনতার চিহ্ন হয়ে দাঁড়ায়। তবে এই জনপ্রিয়তার পেছনে দু জন নারীর অবদান অনস্বীকার্য , রাজা পঞ্চদশ লুই এর প্রণয়িণী মাদাম পম্পাদোর এবং রাজা ষোড়শ লুই এর স্ত্রী মেরি অ্যান্তোনিয়েত। পরবর্তী কালে সাম্রাজ্যবাদী দের হাত ধরে ভারতবর্ষের অন্দরমহলেও ড্রেসিং টেবিল ঢুকে পড়ে ।

ফিরে যান আপনার শোবার ঘরে । সেই দিনটার কথা মনে করুন যেদিন আপনি প্রথম আসবাব পত্র দিয়ে ঘর টা কে সাজিয়েছিলেন। খাট, আলমারি, টিভির র্যাক, যৎযাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ আসবাব সাজানোর পরে, হয়তো কোনো রকমে এক কোণে ড্রেসিং টেবিল টা কে বসিয়ে দিয়ে ছিলেন । এবার ভেবে দেখুন, ব্যাপারটা যদি একটু অন্যরকম হতো, মানে ধরুন যদি যে কোন দুটো ফার্নিচার কে জুড়ে দেওয়া হয়, তাহলে? রায় সাহেবের ভাষায় হাঁস আর সজারু মিলিয়ে হাঁসজারু তৈরী করা আর কি! তাতে জায়গা আর খরচ দুই ই কম হয়।

ban-trang-diem-021.jpg

ভাবছেন, এ আর এমন কী? আলমারির গায়ে আয়না তো আপনি ছোটবেলা থেকেই দেখে এসেছেন । কিন্তু আপনার প্রসাধন সামগ্রী রাখার কোনো জায়গা খুঁজে পেয়েছেন কী? হলো না তো? সমস্যা শুরু হওয়ার আগেই সমাধান কিন্তু আপনার হাতের মুঠোয়। শুধু চিরাচরিত আলমারি নয়, ছোট বড় নানা রকমের দেওয়াল আলমারি, ‘ক্লজেট্’ , টিভির র্যাক, ক্যাবিনে, কম্পিউটার টেবিল এমনকি বাংলা ভাষায় যাকে আমরা তোরঙ্গ বলে থাকি, সবকিছুর সাথেই কিন্তু ড্রেসিং টেবিল কে জুড়ে দেওয়া যায়।

তাতে কিন্তু ব্যবহারিক দিকটার সাথে আপস করা হয় না।

হাতটা আচমকা পকেটের দিকে চলে গেল নাকি? হবে হবে, সব হবে । তার আগে বলে রাখি যে ব্যবহারের ব্যপ্তি যত বেশি, দাম সেই অনুযায়ী বেশি হবেই। হতাশ হলেন? রান্নার উপকরণ গুলো বদলে দিলেই কিন্তু সস্তায় পুষ্টিকর খাদ্য আপনার সামনে এসে হাজির । তাতে স্বাদ একটু অন্যরকম হবে ঠিকই, কিন্তু অভিনবত্বে খামতি পড়বে না ।

শুরু করা যাক প্লাস্টিক দিয়ে । প্লাস্টিক যে স্বভাবগত ভাবে হালকা তা আপনার মস্তিষ্ক জানে, তাই অযথা অঅলঙ্করণের পেছনে ছুটে আভিজাত্য আনার চেষ্টা না করাই ভালো, আপনার মস্তিষ্ক তা গ্রহণ নাও করতে পারে । বরঞ্চ ঘরে একটা মডার্ন লুক আনা যেতেই পারে ।
তা ছাড়া আপনার খুদেটির জন্য যদি ছোট্ট একটা ড্রেসিং টেবিলের কথা ভেবে থাকেন, সেক্ষেত্রে প্লাস্টিক অনবদ্য ।হালকা তো বটেই, কিছুদিন পর জিনিসটার উপযোগিতা ফুরিয়ে গেলে খরচের ধাক্কাটাও কম।

2.-White-wall-mounted-dressing-table.png

পছন্দ হলো না? বেশ, ‘মরিচা রোধক ইস্পাত’ ব্যবহার করতেই পারেন বা পেটা লোহা। বুঝলেন না? স্টেনলেস স্টীল আর রট্ আয়রনের কথা বলছি! স্টেনলেস স্টীল এর ক্ষেত্রে কারুকার্যের সুযোগ টা একটু কম , তবে রট্ আয়রনে ঐতিহ্যের ছোঁয়া আনা যেতেই পারে ।
এছাড়াও কম্প্যাক্ট উড বা জমানো কাঠ, চিরাচরিত কাঠের ড্রেসিং টেবিল তো আছেই । পকেটটা একটু ভারী হলে ভাবতেই পারেন ।

আচ্ছা, চাইনিজ আর মোগলাই কখনো একসাথে খেয়েছেন? খান নি তো! ঠিক তেমনি ড্রেসিং টেবিলের মেটিরিয়াল ঠিক করার আগে আশপাশ টা মাথায় রাখবেন । মানে প্লাস্টিকের একটা ক্যাবিনেটের পাশে সেগুন কাঠের ড্রেসিং টেবিলে ছন্দ পতন না ঘটে!

মনস্তত্ত্ব ছাড়া অন্তঃসজ্জার কোনো অস্তিত্ব নেই বললেই চলে । একটু ভেবে দেখুন তো, ড্রেসিং টেবিলের কোন অংশ টা সরিয়ে দিলে তার উপযোগিতাই থাকবে না? ঠিক ধরেছেন, আয়না। গল্পের মজাটা ঠিক এইখানেই । আসবাব টি বসানোর সময় আলোর উৎস টা যে আপনাকে মাথায় রাখতে হবে, তা আপনি জানেন । সেক্ষেত্রে অবশ্য শুধু জানলা নয়, ঘরের লাইট গুলোর দিকেও একটু খেয়াল রাখবেন ।

আপনার অবচেতনে ফিরে আসা যাক । রূপসজ্জা যে সময় সাপেক্ষ তা আপনি জানেন। ভাবুন তো, আয়নার সামনে দাঁড়ালেই আপনার চোখ চলে যাচ্ছে অন্য দিকে – কী সাংঘাতিক কান্ড! অর্থাৎ আপনার মনঃসংযোগ নষ্ট করে এমন কিছু আয়নার উল্টো দিকে না থাকাই ভালো । বা একগাদা অযাচিত জিনিসপত্রে ঠাসা ঘরের কোণ টি যদি সারাক্ষন আয়নায় দেখা যায়, সেটাও খুব সুখকর হবে না ।

রূপপের গণ্ডি পেরিয়ে এবার একটু রঙের দিকে পা বাড়াই ।রঙ খুব বেশি উজ্জ্বল হলে আপনার চোখ টানবেই। তাই রঙ নিয়ে খেলা এক্ষেত্রে বিশেষ স্বস্তিদায়ক হবে না । আপনার শিশুটির জন্যে অবশ্য হলুদ, গোলাপি, ইত্যাদি রঙের কথা ভাবতে পারেন । কারণ, যে পৃথিবীতে এসেছে মাত্র কয়েক বছর আগে, তার কাছে যা বিস্ময়কর, আপনার কিন্তু তা একঘেয়ে লাগতেই পারে । আসবাবের রঙ এমন হোক যা চোখে পড়বে কিন্তু লাগবে না ।

28ebb3b635b7ee41c8a7a758f56b0574.jpg

আপনার অবচেতনের সাথে আয়তক্ষেত্রের সম্পর্ক নিয়ে আগের দিন অনেক কথা বলেছি । আপনার চতুর্ভুজ ড্রেসিং টেবিল টা যদি ‘গোল্ডেন রেশিও’ তে থাকে তাহলে আপনার ব্রেনে যে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে তাও আপনি জানেন । কিন্তু ধরুন গানের ছন্দ বদলাতে চান – কোনো সমস্যা নেই, আবার সেই জ্যামিতির খেলা ।বদলে ফেলুন আয়নার আকার । চতুর্ভুজের বদলে ডিম্বাকৃতি বা গোল আয়না লাগাতে পারেন । তবে খেয়াল রাখবেন জ্যামিতি বদলাতে গিয়ে যেন ব্যবহার করতে সমস্যা না হয়। মানে বহুভুজের দিকে বিশেষ না যাওয়াই ভালো ।
লিঙ্গ ভেদে আসবাবের ডিজাইনে কিন্তু সামান্য হেরফের হয়। নারী – পুরুষের শারীরিক গঠন আলাদা । যেমন, একটি মেয়ের পা সমান উচ্চতার একটি ছেলের থেকে লম্বা হয়। এছাড়াও কাঁধ, কোমর ইত্যাদির অনুপাতে তফাত তো রয়েছেই । কোকা কোলার আকর্ষণ বৃদ্ধির জন্য বোতলের শেপটা ডিজাইন করা হয়েছিল নারী শরীরের
সাথে সাদৃশ্য রেখে । আবার যে সমস্ত জিনিস একান্তই ছেলেরা ব্যবহার করে সেখানে অনেকসময় পুরুষের শারীরিক অনুপাতকে মাথায় রেখে তার আকার দেওয়া হয় ।

‘অ্যান্থ্রোপোমেট্রি’ (মানুষের শারীরিক এই বৈশিষ্ট্য গুলোর চর্চা – অনুপাত , আকার ইত্যাদি ।) আর ডিজাইনের মধ্যে গভীর সম্পর্ক আছে । এতকিছু শুনে আবার ঘাবড়ে যাবেন না যেন ! শুধু একান্তই নিজের জন্য আসবাব কিনলে একটু খেয়াল রাখবেন ।

Dressing-table-design-2014-bedroom-traditional-with-voile-curtains-floral-motif-bombe-chest

যাইহোক , ড্রেসিং টেবিলটা প্রায় পছন্দ করে ফেলেছেন, হঠাৎ মনে হলো জায়গা কই, তাইতো ? ঘরের কোণ টি কিন্তু ড্রেসিং টেবিল রাখার জন্য বরাদ্দ করা যেতেই পারে । সেক্ষেত্রে এমন ডিজাইনও হয় যেখানে কোণের দুটো দেওয়ালই ব্যবহার করা হচ্ছে । তবে আরেকটা নতুন ডিজাইন এর সন্ধান দিতে পারি আপনাকে । জানলা, হ্যাঁ , ঘরে যদি বক্স কাটিং এর জানলা থাকে বা ‘বে উইন্ডো’ থাকে সেটাকে ড্রেসিং টেবিলের জন্য ব্যবহার করতেই পারেন । তবে একটু মাথায় রাখবেন যে ঘরে আলো বাতাস ঢোকার অন্য কোন উপায়, যেমন ধরুন আরেকটা জানলা যেন থাকে । এই ধরনের ড্রেসিং টেবিলে আয়নাটা কিন্তু সাইজে ছোট হয়, গোল আয়নাও লাগাতে পারেন, শুধু জানলার উপযোগিতা বজায় রেখে ।

‘শেষ নাহি যে’ – তাই শেষ বলব না, তবে আজ এখানেই থামব। কিন্তু আপনি থেমে যাবেন না যেন, নিজের পছন্দের ড্রেসিং টেবিল টা সিলেক্ট করে ফেলুন চটপট । যেটুকু লিখলাম সেটা পূর্বাভাস মাত্র, অন্তঃসজ্জার অন্তরে কিন্তু আরো অনেক চমক আপনার জন্যে অপেক্ষা করছে ।

#ডেইলি_ইন্টিরিয়র
#বুকশেল্ফ

লিখেছে – Arunima Ghosh
ছবি – গুগল ইমেজেস

ddd
………………………………………………………………………………………………
***আমাদের ফলো করুন নীচের লিঙ্কে ক্লিক করে –
BLOG – https://sthapatyasite.wordpress.com/
INSTAGRAM – https://www.instagram.com/sthapatya_kala/
TWITTER – https://twitter.com/Sthapatya_Kala
E-MAIL NEWSLETTER – http://eepurl.com/cQpVIz
FACEBOOK GROUP – https://www.facebook.com/groups/sthapatya.kala/

Subscribe to our newsletter
Sign up here to get the latest news, updates and special offers delivered directly to your inbox.
You can unsubscribe at any time

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.

2 Comments
  1. Sagir Hussain Khan says

    ভাল লাগল। ড্রেসিং টেবিল এতটা গরুত্বপূর্ণ এবং ঘরের সৌন্দর্য এভাবে বাড়িয়ে দিতে পারে তা জানা ছিল না। যদিও আমার সারা জীবনের আয়নার ব্যবহার একেবারেই সামান্য। তার পরও যদি বিয়ের পর বৌকে একটা ড্রেসিং টেবিল দিতেই হয় তাহরে আপনাদের পরামর্শগুলোর দিকে লক্ষ রাখার চেষ্টা করবো।

  2. jayatisblog says

    লেখা খুব ভাল ,তথ্য সমৃদ্ধ।দেশীয় ডিজাইনের ছবি বা ড্রয়িং দেওয়ার অনুরোধ রইলো ।

error: যোগাযোগ করুন - info.sthapatya@gmail.com